এমপি- মন্ত্রীদের সুপারিশে মিলবে না ট্রেনের টিকিট।

কালের সমাচার ডেস্ক।

বাংলাদেশ রেলওয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছে মন্ত্রী, সংসদ সদস্য ও সচিবরা নিজে ট্রেনে চড়ে বাড়ি না গেলে, ট্রেনের কোনো ‘ভিআইপি’ টিকিট তাদের সুপারিশে দেয়া হবে না।

বরাবরই রেল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল, মন্ত্রী, এমপি, সচিবদের সুপারিশে ঈদের সময় বিপুল পরিমাণে ‘ভিআইপি টিকিট’ বিক্রি হয়।

যে কারণে আরও বেশি ভোগান্তি পোহাতে হয় সাধারণ মানুষদের ঈদে বাড়ি ফেরার টিকিট কিনতে।

এবার রেলপথ মন্ত্রণালয় সাধারণ মানুষের কথা মাথায় রেখে সিদ্ধান্ত নিয়েছে,

ভিআইপিদের জন্য ৫ শতাংশ ও রেল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য ৫ শতাংশ টিকিট থাকবে।

আর বাকি সব টিকিট ছেড়ে দেয়া হবে সাধারণ যাত্রীদের জন্য।

শর্ত জুড়ে দেয়া হয়েছে ভিআইপিদের জন্য বরাদ্দ ৫ শতাংশ টিকিটেও।

রেল মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে তারা নিজেরা ট্রেনে চড়ে গন্তব্যে রওনা হলেই কেবল টিকিট কিনতে পারবেন।

রেলওয়ে মহাপরিচালক রফিকুল আলম এ বিষয়ে বলেন, এবার মাত্র দুটি কোটা থাকবে রেলের ঈদ টিকিটে।

একটি ভিআইপি এবং অন্যটি রেল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য।

এ দুই কোটার জন্য ১০ ভাগ কোটা থাকবে জানিয়ে তিনি বলেন, বাকি সব টিকিট উন্মুক্ত থাকবে সাধারণ যাত্রীদের জন্য।

এর আগে জানা গিয়েছিল, এবার কোনো ভিআইপি কোটা থাকবে না রেলের ঈদ টিকিটে।

রেলপথ মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে নতুন রেলপথবিষয়ক মন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন ভিআইপি কোটা বিলুপ্তই করতে চেয়েছিলেন।

পরে তিনি মৌখিক নির্দেশনা দেন, যদি মন্ত্রী, সচিব, এমপি ও বিচারপতিরা নিজেরা ট্রেনে ঈদ করতে যান, তাহলে তারা টিকিট পাবেন।

অন্যথায় নয়। তাদের ডিও লেটারে কোনো টিকিট সেক্ষেত্রে ইস্যু করা হবে না।

কঠোরভাবে সেই নির্দেশনা বাস্তবায়ন করবে মন্ত্রণালয়।

বাংলাদেশ রেলওয়ের তথ্য অনুযায়ী, এবার ঈদে প্রতিদিন ঢাকা থেকে দেশের বিভিন্ন গন্তব্যে প্রায় ৩০ হাজার টিকেট বিক্রি হবে।

এর মধ্যে ৫০ শতাংশ বিক্রি হবে অ্যাপের মাধ্যমে।

এবার কমলাপুর রেল স্টেশন ছাড়াও চারটি স্থানে টিকিট বিক্রি করা হবে প্রথমবারের মতো।

৩১ মের টিকিট বিক্রি করা হবে ২২ মে, ১ জুনের টিকিট বিক্রি করা হবে ২৩ মে,

২ জুনের টিকিট বিক্রি করা হবে ২৪ মে, ৩ জুনের টিকিট বিক্রি করা হবে ২৫ মে ও ৪ জুনের টিকিট বিক্রি করা হবে ২৬ মে।

ফিরতি ঈদযাত্রার জন্য ৭ জুনের টিকিট বিক্রি করা হবে ২৯ মে, ৮ জুনের টিকিট বিক্রি করা হবে ৩০ মে,

৯ জুনের টিকিট বিক্রি করা হবে ৩১ মে, ১০ জুনের টিকিট বিক্রি করা হবে ১ জুন এবং ১১ জুনের টিকিট বিক্রি করা হবে ২ জুন।