রয়টার্সের ২ সাংবাদিকের মুক্তি।

কালের সমাচার ডেস্ক।

মিয়ানমার সরকার কারাবন্দী থেকে রয়টার্সের দুই সাংবাদিককে মুক্তি দিয়েছে। তাদের মুক্তি দেওয়া হয় মিয়ানমার প্রেসিডেন্টের সাধারণ ক্ষমার আওত্তায়।

ওই দুই সাংবাদিক কারাবন্দী ছিলেন দেশের গোপনীয় আইন ভঙ্গের অভিযোগে।

তাদের গ্রেপ্তার ও কারাবন্দী করা হয়েছিল রোহিঙ্গা নির্যাতন বিষয়ে সংবাদ প্রকাশ করায়।

ইয়াঙ্গুনের ইনসিন কারাগার প্রধান জ জ বলেন, মঙ্গলবার সকালে সাংবাদিক ওয়া লুন এবং কিয়াও সোয়ে ওকে মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, ৬ হাজার ৫২০ বন্দির জন্য প্রেসিডেন্ট উইন মিন্ট সাধারণ ক্ষমা জারি করেন। এর মধ্যে ছিলো রয়টার্সের দুই সাংবাদিক। তাদের মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা এ বিষয়ে গণমাধ্যমকে বলেন, তারা কারাগার থেকে দুই সাংবাদিককে বের হতে দেখেছেন।

দেশটির বিচারিক আদালত এই দুই সাংবাদিককে সাত বছর কারাভোগের আদেশ দেয়। গত ২৩ এপ্রিল তারা পুনর্বিবেচনার জন্য আবেদন করেন।

কিন্তু মিয়ানমার সুপ্রিম কোর্ট সেই আবেদন খারিজ করে দিয়ে সাংবাদিকদ্বয়কে কারাগারে পাঠায়।

এই দুই সাংবাদিক আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনীর নির্যাতনের মুখে রোহিঙ্গা মুসলিম সম্প্রদায়ের বাস্তুচ্যুত হওয়া বিষয়ে সংবাদ প্রকাশ করে।

এরপর মিয়ানমার সরকার তাদের বিরুদ্ধে গোপনীয়তা বিষয়ক আইন লঙ্ঘনের অভিযোগে মামলা করে ও তাদের গ্রেপ্তার করে।