ভিক্ষুকের মেয়েকে ধর্ষণকারী ইমাম গ্রেফতার।

কালের সমাচার ডেস্ক।

হাজীগঞ্জ থানা পুলিশ চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলায় শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে ইমামকে গ্রেফতার করেছে।

২০ মে সোমবার দুপুরে গ্রেফতারের পর আটক ইমামকে চাঁদপুর আদালতে হাজির করলে তার জামিন নামঞ্জুর করে আদালত তাকে কারাগারে পাঠায়।

পুলিশ জানায়, মেয়েটিকে ধর্ষণের পর গত প্রায় ৫ মাস পলাতক ছিল চাঁদপুর সদর উপজেলার দেবপুর জামে মসজিদে কর্মরত মোজাম্মেল হক (ইমাম)।

শাহরাস্তি উপজেলার টামটা উত্তর ইউনিয়নের বাসিন্দা গ্রেফতারকৃত মোজাম্মেল।

হাজীগঞ্জ থানা সূত্র জানা যায়, ধর্ষিতার বাবা অন্ধ হওয়ায় দিনের বেলায় স্ত্রীকে নিয়ে হাজীগঞ্জ বাজারে ভিক্ষা করেন।

ইমাম মোজাম্মেল হক প্রতিবন্ধী পরিবারের সরলতার সুযোগে মেয়েকে ইংরেজি পড়ানোর কথা বলে তাদের সাথে সম্পর্ক গড়ে তোলে।

এ ঘটনার ৬ মাস পর সোমবার সকালে হাজীগঞ্জ বাজারে ভিক্ষুক মা ধর্ষক ইমামকে ধরে ফেলে। পরে স্থানীয় জনতা পুলিশের হাতে তুলে দেয় ইমামকে।

মেয়েটিকে ভালোভাবে পড়ানোর কথা বলে গত ১৭ নভেম্বর হাজীগঞ্জ বাজারে ভাড়া নেয়া একটি ফ্ল্যাট বাসায় মেয়েটিকে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে।

হাজীগঞ্জ থানা ওসি মো. আলমগীর হোসেন রনি বলেন,

“মেয়েটিকে ইংরেজি পড়ানোর নাম করে ইমাম সরলতার সুযোগ নেয়।

ওই ইমাম একটি বাসা ভাড়া নিয়ে মাত্র ৫০০ টাকা দিয়ে এক দিন ছিল ওই ফ্ল্যাটে।”

তিনি আরো জানান, “ধর্ষিতা মেয়েটির বাদী হয়ে হাজীগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন মামলা দায়ের করেছেন।

এরই প্রেক্ষিতে তাকে গ্রেফতার করে সোমবার সকালে তাকে আদালতে প্রেরণ করা হয়।”